ইউরোপএশিয়াবিশ্বযুক্তরাষ্ট্র

বাইডেনের এশিয়া সফর শেষ হওয়ার পরপরই উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা

নন্দন নিউজ ডেস্ক: দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী বলেছে, স্থানীয় সময় আজ বুধবার সকালে তিনটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া। পিয়ংইয়ংয়ের সুনান এলাকা থেকে এক ঘণ্টারও কম সময়ে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো ছুড়েছে দেশটি। খবর বিবিসির।

জাপান সরকারও বলেছে, আজ বুধবার কমপক্ষে দুটি ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া। সামনে আরও ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানো হতে পারে বলে আভাস দিয়েছে দেশটি।

জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী নোবুয়ো কিশি বলেন, প্রথম ক্ষেপণাস্ত্রটি প্রায় ৩০০ কিলোমিটার দূরে গিয়ে পড়েছে। এটি প্রায় সাড়ে ৫০০ কিলোমিটার উঁচু দিয়ে উড়ে যায়। আর দ্বিতীয় ক্ষেপণাস্ত্রটি ৫০ কিলোমিটার উঁচুতে উঠে ৭৫০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করেছে।

ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার সমালোচনা করেছেন কিশি। একে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে উল্লেখ করেছেন তিনি। কিশি আরও বলেন, ‘এ ধরনের কর্মকাণ্ডের কারণে জাপান ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের শান্তি, স্থিতিশীলতা ও নিরাপত্তা হুমকিতে পড়তে পারে।’ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার পর এক বৈঠকে এ পরীক্ষাকে বিশাল উসকানি বলে উল্লেখ করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদ।

দক্ষিণ কোরিয়া ও জাপানে পাঁচ দিনের সফর শেষে গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওনা হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। আর এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া।যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার কর্মকর্তারা আগেই আভাস দিয়েছিলেন বাইডেনের সফরের সময়ে উত্তর কোরিয়া ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাতে পারে।

সিউল সফরে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইয়ুন সুক ইওলের সঙ্গে বৈঠক করেছেন বাইডেন। দুই দেশের মধ্যে বড় আকারে সামরিক মহড়া পরিচালনা এবং উত্তর কোরিয়ার অস্ত্র পরীক্ষা ঠেকাতে প্রয়োজনে আরও বেশি করে সামরিক সরঞ্জাম মোতায়েনের ব্যাপারেও সম্মত হন দুই নেতা।

এর আগে ১২ মে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছিল উত্তর কোরিয়া। সে একই দিনে কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের কারণে দেশে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন উত্তর কোরীয় নেতা কিম জং–উন। দক্ষিণ কোরিয়া বলছে, তারা উত্তর কোরিয়াকে মানবিক সহায়তা পাঠানোর প্রস্তাব দিয়েছে। তবে পিয়ংইয়ং তাতে সাড়া দেয়নি।

সম্পর্কিত নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button