যুক্তরাষ্ট্র

ইউক্রেনের আগে নিজেদের স্কুলগুলো নিরাপদ করুন: ট্রাম্প

নন্দন নিউজ ডেস্ক: ইউক্রেনে সামরিক সহায়তা পাঠানোর চেয়ে নিজেদের স্কুলের নিরাপত্তা নিশ্চিতের দিকে বেশি মনোযোগ দেওয়ার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের আইনপ্রণেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় গতকাল শুক্রবার আগ্নেয়াস্ত্রের সমর্থনে আয়োজিত এক সম্মেলনে বক্তব্য দিতে গিয়ে ট্রাম্প এ আহ্বান জানান। টেক্সাসের স্কুলে বন্দুকধারীর হামলায় ২১ জন নিহত হওয়ার প্রেক্ষাপটে এমন আহ্বান জানান তিনি। খবর বিবিসির।

চলতি মাসের শুরুর দিকে ইউক্রেনে প্রায় চার হাজার কোটি ডলার পরিমাণ সামরিক সহায়তা পাঠানোর প্রস্তাব অনুমোদন করে মার্কিন কংগ্রেস। ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরুর পর মার্কিন আইনপ্রণেতারা ইউক্রেনে সব মিলে প্রায় ৫ হাজার ৪০০ কোটি ডলার সহায়তা পাঠানোর অনুমোদন দিয়েছেন।গত শুক্রবার হাউস্টনে আগ্নেয়াস্ত্রের পক্ষের সবচেয়ে বড় সংগঠন-এনআরএর বার্ষিক সম্মেলনে ট্রাম্প প্রশ্ন ছুড়ে দেন, যুক্তরাষ্ট্র যখন স্কুলগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারছে না, তখন তারা কীভাবে ইউক্রেনে চার হাজার কোটি ডলার সহায়তা পাঠাতে পারছে?

ট্রাম্প আরও বলেন, ‘বিশ্বের অন্য দেশগুলোকে গড়ে দেওয়ার আগে আমাদের নিজেদের দেশের স্কুলগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা প্রয়োজন, আমাদের শিশুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা প্রয়োজন।’

সাবেক এ মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, কংগ্রেসের উচিত কোভিড মোকাবিলায় বরাদ্দকৃত অর্থের মধ্যে যা বেঁচে গেছে, তা অবিলম্বে পাই পাই করে ফেরত নেওয়া।

অঙ্গরাজ্যগুলো থেকে অর্থ ফেরত নিয়ে দেশজুড়ে প্রতিটি স্কুলে দ্রুত দুর্ভেদ্য নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠার কাজে তা ব্যবহার করতে হবে। কঠোর আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইন প্রণয়নের প্রস্তাবও নাকচ করে দিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘মন্দ লোক’ থেকে নিজেদের সুরক্ষিত রাখতে প্রত্যেক মার্কিন নাগরিককে আগ্নেয়াস্ত্র বহনের অনুমতি দেওয়া উচিত।

স্কুলগুলোতে সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতের প্রস্তাব দিয়েছেন ট্রাম্প। তিনি মনে করেন, স্কুলগুলোর প্রবেশপথে মেটাল ডিটেক্টর স্থাপনসহ প্রতিটি ক্যাম্পাসে অন্তত একজন করে সশস্ত্র পুলিশ কর্মকর্তা নিয়োজিত থাকা উচিত।এনআরএর সদস্য সংখ্যা ৫০ লাখ। সম্প্রতি টেক্সাসের যে এলাকায় স্কুলে বন্দুকধারীর হামলা হয়েছে সেখান থেকে ২৮০ মাইল দূরে এবার এনআরএর বার্ষিক সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

সম্পর্কিত নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button