তথ্য প্রযুক্তি

বছরের সেরা আবিস্কার নাসার Ares রকেট

গতকাল টাইম থেকে প্রকাশিত বছরের সেরা ৫০টি আবিস্কারকে তুলে ধরেছিলাম টিউনার বন্ধুদের সামনে। টিউনটি আপনাদের ভালো লাগায় আমি খুবই আনন্দিত! এই আবিস্কারগুলোর মধ্য থেকে কিছি কিছু আবিস্কার ছিল আশাকরি বিশেষ বিশেষ আবিস্কারগুলোকে নিয়ে আলদা আলাদা টিউন করব। আজ আরেকটু কাছ থেকে নেব নাসার অ্যারেস রেকটটি। টাইম প্রকাশিত তালিকায় এটিই প্রথম স্থান দখল করে নিয়েছে! আসুন দেখে নেই এই সেরা প্রজেক্টটি –

টেস্টিং

ares_launch_01

৩২৭ ফুট উচ্চতার এই বিশ্বয়কর রোবটটি নাসার ফিউচার মিশনের প্রটোটাইপ হিসেবে ডেভলাপ করা হয়েছে। নাসার কর্মকর্তাদের মতে অতীতের সকল রেকর্ড ভেঙ্গে দেয়ার ক্ষমতা রাখে ARES!

ইতাহাস

ares_launch_02

এই রকেটটি নাসার কন্সটেলেশান প্রোগ্রামের আওতায় রকেট ফ্যামিলির একটি খুবই গুরুত্বপূর্ন স্থান ইতোমধ্যেই দখল করে নিয়েছেন। আশ্চর্য হলেও সত্যি এই প্রোগ্রমের প্রবক্তা ছিলেন আমেরিকার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বুশ মামা। বর্তমানে এতে সংযুক্ত করা হচ্ছে ভবিষ্যতের সকল অভিযানের জন্যে শাটেল অ্যাটাচমেন্ট সিস্টেম।

লন্চ প্যাড

ares_launch_03

রকেটের লন্চ প্যাড কি সেটা তো আমরা সবাই জানি। যেখান থেকে রকেকটি কে সাধারণত লন্চ করা হয়ে থাকে। ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেস সেন্টারে বানানো হয় এর লন্চ প্যাডটি। আসলেই দেখার মত একটি লন্চ প্যাড

লক্ষ্য

ares_launch_04

লক্ষ্য আর কি ই বা হবে?. মহাকাশ অভিযানগুলো কে আরো ইক্যুয়িপড্ এ আরো সাকসেসফুল করে তোলা!

প্রতিবন্ধকতা

ares_launch_05

শুধুমাত্র ৪৪ মিলিয়ন ডলারের একটি টেস্ট ফ্লাইট চালিয়েই নাসা সাফ সাফ জানিয়ে দিয়েছে যে, মানবতার কল্যানে অর্থবহ অভিজান চালাতে তাদের বছরে আরো তিন বিলিয়ন ডলার এক্সট্রা দরকার। আমেরিকা সরকার হাড়ে হাড়ে টের পেয়ে গেছে এই রকেট কে পুষতে হলে তাদের অনেক কাঠ খড় পোড়াতে হবে।

টেস্ট ফ্লাইট

ares_launch_06

মিশন সাকসেসফুল

ares_launch_07

রকেট টির লন্চিং ডিরেক্টার ‘এযওয়ার্ড জে ম্যাঙ্গো’ র আন্ডারে এর প্রথম সাকসেসফুল টেস্ট ফ্লাইটটি সম্পন্য হয়। তবে টেস্ট লন্চের সময় রকেটের আগায় একটি কোনাকৃতির এক্ট্রা ময়েশ্চার সংযুক্ত করা হয়। সুপারসনিক স্পীডের কারণে টেস্ট ড্রাইভেই যেন কোন সমস্যা না হয় তাই এই এক্সট্রা নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button