এশিয়াভারত

অস্ট্রেলিয়া ভারত থেকে নাগরিকদের ফেরাতে ফ্লাইট চালু করবে

ভারত থেকে নিজ দেশের নাগরিকদের ফেরাতে ফ্লাইট চালু করবে অস্ট্রেলিয়া। ভারতে সম্প্রতি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার পর দেশটির সঙ্গে ফ্লাইট বাতিল করেছিল অস্ট্রেলিয়া। বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ১৫ মে এই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হবে।

করোনাভাইরাসের মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হানার পর অনেক দেশই ভারতের সঙ্গে ফ্লাইট বাতিল করেছে। এর ফলে অনেক দেশের নাগরিকই সেখানে আটকা পড়েছে। অস্ট্রেলিয়াও এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। ফলে নিজ দেশের আটকা পড়া নাগরিকদের ভারত থেকে ফেরাতে না পারায় সমালোচিত হয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন।অস্ট্রেলিয়া সরকারের এই সিদ্ধান্তে নাগরিকদের ক্ষুব্ধ হওয়ার কারণ হলো, সরকার ওই নিষেধাজ্ঞা জারির পর সরকার বলেছিল, যদি কেউ দেশে আসার চেষ্টা করে তবে তার কারাদণ্ড অথবা জরিমানা হবে। সরকারের এমন মন্তব্যে দেশটির নাগরিকেরা আরও ক্ষুব্ধ হয়। ফলে সরকার তার সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটতে বাধ্য হয়। চলতি সপ্তাহে মরিসন বলেন, দেশে ফেরার চেষ্টা করে ‘কারাগারে যাওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম’।

এরপর আজ শুক্রবার মরিসন বলেন, মে মাসের দ্বিতীয় ভাগে ঝুঁকিপূর্ণ ৯০০ নাগরিককে দেশে ফেরানোর পরিকল্পনা করছে তাঁর সরকার। তিনটি ফ্লাইটের মাধ্যমে ওই নাগরিকদের ফেরানো হবে।

অস্ট্রেলিয়ার নর্দান টেরিটরির হাওয়ার্ড স্প্রিংসে ভারত থেকে ফেরা নাগরিকদের নেওয়া হবে কোয়ারেন্টিনের জন্য। আগামী সপ্তাহে সেখানকার কোয়ারেন্টিন কেন্দ্রের শয্যাসংখ্যা বাড়িয়ে ২ হাজার করা হবে।এই কোয়ারেন্টিন ব্যবস্থাকে কেন্দ্র করেই ভারতের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছিল অস্ট্রেলিয়া। ওই নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর সরকার বলেছিল, ভারত থেকে যারা ফিরছে তাদের মধ্যে সংক্রমণের হার বেশি, যা কোয়ারেন্টিন ব্যবস্থাকে চাপের মুখে ফেলেছে। আজ মরিসন বলেন, যে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছিল, তা কাজে এসেছে।

অস্ট্রেলিয়ার ৯ হাজার নাগরিক ও স্থায়ী বাসিন্দা রয়েছে ভারতে। মরিসন বলেন, বাণিজ্যিক ফ্লাইট চালু করা হবে কি না, সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে আগামী সপ্তাহে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button