উত্তর আমেরিকাযুক্তরাষ্ট্র

ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ফৌজদারি তদন্ত শুরু

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতিষ্ঠানের ফৌজদারি অপরাধ তদন্ত শুরু করেছে। অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয় গতকাল মঙ্গলবার এ তথ্য জানিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, এর মধ্য দিয়ে আইনি জটিলতার ঝুঁকির মুখে পড়লেন ট্রাম্প ও তাঁর পরিবারের সদস্যরা।

 

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, সাবেক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিভিন্ন ব্যবসায়িক চুক্তি নিয়ে তদন্ত এগিয়ে নিয়েছেন নিউইয়র্কের কৌঁসুলিরা। এরপর এমন ঘোষণা এল।নতুন শুরু হওয়া এই তদন্ত প্রসঙ্গে নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেতিশিয়া জেমসের মুখপাত্র ফেবিয়েন ল্যাভি বলেন, ‘ট্রাম্পের প্রতিষ্ঠান “ট্রাম্প অর্গানাইজেশন”–এর অপরাধ আমরা গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করছি। ম্যানহাটন ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নির কার্যালয়ও এই তদন্তের সঙ্গে যুক্ত রয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ট্রাম্পের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের যে তদন্ত শুরু হয়েছে, তা আর শুধু দেওয়ানি তদন্ত থাকছে না।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ট্রাম্পের প্রতিষ্ঠান সম্পদের মিথ্যা হিসাব দিয়ে ঋণ, আর্থিক বা কর–সুবিধা নিয়েছে কি না, তা জানতে তদন্ত শুরু হয়েছে।সাবেক এই প্রেসিডেন্ট প্রায় চার মাস আগে হোয়াইট হাউস ছেড়েছেন। তিনি ক্ষমতা ছাড়ার পর থেকে একের পর এক তদন্ত শুরু হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। সর্বশেষ এই ফৌজদারি অপরাধ তদন্ত শুরুর মধ্য দিয়ে তিনটি তদন্ত চলমান হলো ট্রাম্পের বিরুদ্ধে।নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেলের কার্যালয়ের পক্ষে থেকে এই তদন্তের ঘোষণা দেওয়ার পর ট্রাম্প অর্গানাইজেশন কোনো মন্তব্য করেনি। তবে এর আগে ট্রাম্প বলেছিলেন, লেতিশিয়া জেমস যে তদন্ত পর্যবেক্ষণ করছেন, তা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। জেমস একজন ডেমোক্র্যাট।

নিউইয়র্কের এই তদন্তের সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন ম্যানহাটন ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নি সাইরাস ভ্যানস। ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হওয়ার আগের দুই বছরের বেশি সময়ে যেসব ব্যবসায়িক চুক্তি করেছেন, তার তদন্ত করছেন সাইরাস ভ্যানস।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button