যুক্তরাষ্ট্র

হামদককে পুনঃপ্রতিষ্ঠা গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ: ব্লিঙ্কেন

 নন্দন নিউজ ডেস্ক: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেক্রেটারি অফ স্টেট অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন সুদানের নেতাদের দেশের গণতান্ত্রিক উত্তরণকে ট্র্যাকে ফিরিয়ে আনতে দ্রুত কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন। সেই সাথে আবদাল্লা হামদককে গৃহবন্দি থেকে মুক্তি দিয়ে পুনঃপ্রতিষ্ঠা করাকে গুরুত্বপূর্ণ কাজ বলেছেন। সোমবার (২২ নভেম্বর) পুনঃস্থাপিত প্রধানমন্ত্রী আবদাল্লা হামদক এবং জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল-বুরহানের সাথে পৃথকভাবে ফোন কলে কথা বলে এমন আহ্বান করেছেন ব্লিঙ্কেন। সেই সাথে নিরাপত্তা বাহিনীকে বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে সহিংসতামূলক ব্যবহার থেকে বিরত থাকার জন্যও আহ্বান জানিয়েছেন ব্লিঙ্কেন। স্থানীয় এক মুখপাত্রের তথ্য অনুসারে, দেশটি বেসামরিক শাসনে রুপান্তর পুনরুদ্ধারের জন্য দুই নেতা চুক্তিবদ্ধ হয়েছে। আল-বুরহানের ক্ষমতা দখলের পর গত অক্টোবর মাসে দেশটিতে রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টি হয়। সুদানের সামরিক বাহিনী প্রধানমন্ত্রী হামদক এবং রাজনৈতিক নেতাদের গৃহবন্দি করার মাধ্যমে দেশটির অন্তর্বর্তী সরকার ভেঙ্গে দেয়। সেই সাথে জরুরি অবস্থাও ঘোষণা করে সামরিক বাহিনী। ক্ষমতা টেকওভারের এমন বিষয়ে দেশটিতে বিক্ষোভের সূত্রপাত হয়। যদিও এই বিক্ষোভে নিহত হয়েছেন বহু সংখ্যক সুদানবাসী। তবুও সামরিক শাসনের প্রতিবাদে একাধারে বিক্ষোভ চলমান রয়েছে। ব্লিঙ্কেনের মুখপাত্র নেড প্রেইস এক বিবৃতিতে বলেছেন, মার্কিনের শীর্ষ কূটনীতিবিদরা সুদানী নেতাদের বলেছেন যে হামদককে গৃহবন্দিত্ব থেকে মুক্তি এবং অফিসে পুনঃস্থাপন একটি ‘গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ’ এবং অসামান্য ক্রান্তিকালীন কাজ’ বাকি রয়েছে। প্রেইস বলেন, ‘জনগণের আস্থা পুনরুদ্ধারের জন্য অবিলম্বে সমস্ত রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তির আহ্বান জানিয়ে দেশটিতে ভলমান জরুরি অবস্থা তুলে নেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হয়েছে’। নেড প্রেইস জানান,২১ নভেম্বর আবদাল্লা হামদক এবং জেনারেল বুরহানের স্বাক্ষরিত ১৪ দফা চুক্তি বাস্তবায়নের জন্য সময়োপযোগী পদক্ষেপ নিতে হবে। যার মধ্যে ক্রান্তিকালীন আইন পরিষদ, বিচারিক কাঠামো, নির্বাচনী প্রতিষ্ঠান এবং একটি সাংবিধানিক কনভেনশন অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় হামদক এবং বুরহানের মধ্যে চুক্তিকে স্বাগত জানিয়েছে। তবে যারা পূর্ণ বেসামরিক শাসনের দাবি করেছে তারা চুক্তিটির বিরোধিতা করেছে। এর মধ্যে রয়েছে ফোর্সেস ফর ফ্রিডম অ্যান্ড চেঞ্জ, বেসামরিক জোট যারা অভ্যুত্থানের আগে সামরিক বাহিনীর সাথে ক্ষমতা ভাগ করে নিয়েছিল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button