ইউরোপএশিয়াবিশ্ব

আফগানিস্তানে ফিরতে পারে ইউরোপীয় দূতরা: ম্যাক্রোঁ

নন্দন নিউজ ডেস্ক: আফগানিস্তানে যৌথ কূটনৈতিক মিশন খোলার চিন্তাভাবনা করছে কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ। ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ একথা বলেছেন।

তিনি বলেন, অনেকগুলো বিষয় নিষ্পত্তি করতে হবে। বিশেষত, রাষ্ট্রদূতদের ফেরার জন্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

তবে কূটনৈতিক মিশন শিগগিরই খোলা হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি। একইসঙ্গে ম্যাক্রোঁ এও জানিয়ে দেন যে, এই পদক্ষেপ নেওয়া মানেই তালেবানকে রাজনৈতিক স্বীকৃতি দেওয়া নয়।

তালেবান গত অগাস্টে আফগানিস্তান দখলের পর পশ্চিমা দেশগুলো সেখান তাদের দূতাবাস বন্ধ করাসহ রাষ্ট্রদূতদের প্রত্যাহার করে নিয়েছিল। কয়েকজন তালেবান মন্ত্রীর ওপর ‍যুক্তরাষ্ট্র এবং জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞাও আরোপ হয়।

বিবিসি জানায়, কাতারের দোহায় শনিবার সাংবাদিকদেরকে ম্যাক্রোঁ বলেছেন, “আমরা কয়েকটি ইউরোপীয় দেশের মধ্যে একটি সংগঠন তৈরির কথা ভাবছি… যেখানে ইউরোপীয়রা একাট্টা হতে পারবে এবং আমাদের রাষ্ট্রদূতরা উপস্থিত থাকতে পারবেন।”

“তালেবানের সঙ্গে রাজনৈতিক সংলাপে বসা কিংবা তাদেরকে রাজনৈতিক স্বীকৃতি দেওয়ার চেয়ে বরং এটি একটি ভিন্ন পন্থা।”

ফ্রান্স গত শুক্রবার এও জানিয়েছে যে, কাতার আফগানিস্তান থেকে ৩শ’রও বেশি মানুষকে সরিয়ে নিতে সহায়তা করেছে, যাদের বেশিরভাগেই আফগান।

তালেবান ক্ষমতা দখলের পর আফগানিস্তান থেকে চলে যাওয়া ১২৪,০০০ মানুষের অর্ধেকই দেশ ছেড়েছে কাতার হয়ে। দেশটিতে দীর্ঘদিন ধরে তালেবানের রাজনৈতিক কার্যালয়ও আছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button