ইউরোপএশিয়াবিশ্ব

ক্রোয়েশিয়া শেনজেনভুক্ত হতে পারবে: ইইউ

নন্দন নিউজ ডেস্ক: ক্রোয়েশিয়া শেনজেনভুক্ত দেশের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত অর্থাৎ শেনজেনে যোগ দিতে পারবে বলে জানিয়েছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন। তবে কবে নাগাদ দেশটি শেনজেনভুক্ত হতে পারবে সে বিষয়ে এখনো স্পষ্ট কিছু জানানো হয়নি। শেনজেনভুক্ত দেশের নাগরিকদের ভ্রমণের ক্ষেত্রে কোনো পাসপোর্টের প্রয়োজন হয় না। জাগরেব ব্রাসেলসকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছে যে, তারা তাদের বাহ্যিক সীমান্ত কার্যকরভাবে পরিচালনা করতে সক্ষম।

ক্রোয়েশিয়া ২০১৩ সালে ইইউয়ের সদস্য হয়। তাছাড়া দেশটি একক-মুদ্রা ইউরো জোনেও যোগ দিতে চায়। তবে অভিবাসী সমস্যার কারণে দীর্ঘদিন ধরেই এটি একটি সংবেদনশীল ইস্যু ছিল।

স্বরাষ্ট্রবিষয়ক ইউরোপীয় কমিশনার ইলভা জোহানসন ব্লকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে চুক্তি হওয়ার পর বলেন, ক্রোয়েশিয়া এখন প্রস্তুত। ২০১৯ সালে ক্রোয়েশিয়াকে শেনজেনভুক্ত করার জন্য সুপারিশ করেছিল কমিশন।

কিছু বেসরকারি সংস্থা জানিয়েছে, শেনজেনভুক্ত হওয়ার জন্য জাগরেব অবৈধ অভিবাসীদের প্রবেশ বন্ধ করতে পারে এমন মনোভাবই ইউরোপিয়ান ইউনিয়নকে দেখিয়ে আসছে দেশটি। জানা গেছে, ক্রোয়েশিয়া যদি শেনজেনভুক্ত হয় তাহলে দেশটিতে বিনা বাধায় পর্যটকরা আসতে পারবে।

শেনজেনভুক্ত দেশের নাগরিকরা বিনা বাধায় এক দেশ থেকে অন্য দেশে বসবাস ও ভ্রমণ করতে পারে। তবে করোনা মহামারির সময় ভ্রমণকারীদের ওপর অনেক বিধিনিষেধ আরোপ ছিল। ২৬টি দেশ নিয়ে শেনজেন জোন গঠিত। ইউরোপের দেশ না হয়েও সুইজারল্যান্ড ও নরওয়ে শেনজেনভুক্ত।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button