কোভিড-১৯ভারত

ভারতে এক দিনে কোভিড শনাক্ত দেড় লাখ

নন্দন নিউজ ডেস্ক: ভারতে এক দিনে শনাক্ত কোভিড রোগীর সংখ্যা দেড় লাখ ছাড়িয়েছে, করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে সাড়ে তিন হাজার।

গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের দাপটে বিপর্যয়কর পরিস্থিতি সামলে ভারতে রোগীর সংখ্যা কমে এলেও ডিসেম্বরের শেষ থেকে আবারও শনাক্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রোববার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় পুরো ভারতে ১ লাখ ৫৯ হাজার ৬৩২ জনের মধ্যে সংক্রমণ ধরা পড়েছে, যা আগের দিনের চেয়ে ১৩ শতাংশ বেশি। দৈনিক নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার বেড়ে ১০ দশমিক ২১ শতাংশে পৌঁছেছে।

মহামারীর দুই বছরে ভারতে শনাক্ত কোভিড রোগীর সংখ্যা ৩ কোটি ৫৫ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। গত এক দিনে আরও ৩২৭ জন মারা যাওয়ায় কোভিডে মোট মৃত্যু পৌঁছেছে ৪ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯০ জনে।

গত এক দিনে কেবল মহারাষ্ট্রেই ৪১ হাজারের বেশি নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে। মুম্বাই ও দিল্লি- দুই শহরেই শনাক্ত হয়েছে ২০ হাজারের বেশি রোগী।

ভারতে সক্রিয় কোভিড রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৯০ হাজার ৬১১ জনে। হাসপাতালে ভিড় বাড়তে থাকায় বিভিন্ন রাজ্যে নতুন করে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

গত বছরের নভেম্বরের শেষে দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত ওমিক্রন পুরো বিশ্বেই আতঙ্ক তৈরি করেছে। ভারতের ২৮টি রাজ্যের মধ্যে ২৭টিতেই ছড়িয়ে পড়েছে এ ধরন।

রোগীদের মধ্যে যাদের নমুনা নিয়ে ভাইরাসের জিনোম সিকোয়েন্স বিশ্লেষণ করা হয়েছে, তাদের মধ্যে আরও ৬১৬ জনের মধ্যে ওমিক্রনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে গত এক দিনে। সব মিলিয়ে ৩ হাজার ৬২৩ জনের মধ্যে ওমিক্রনের সংক্রমণ ধরা পড়ল ভারতে।

মোট কোভিড শনাক্তের পাশাপাশি ওমিক্রন আক্রান্তের দিক দিয়েও শীর্ষে মহারাষ্ট্র, সেখানে ওমিক্রনে আক্রান্ত হাজার ছাড়িয়েছে। এরপরই রয়েছে দিল্লি। ভারতের রাজধানী শহরে ওমিক্রনে আক্রান্ত হয়েছেন ৫১৩।

ভারতের কাউন্সিল অব মেডিকেল রিসার্চ-আইসিএমআর বলেছে, করোনাভাইরাসের ডেল্টা ধরনকে টেক্কা দিয়ে ওমিক্রনই এখন প্রাধান্য বিস্তার করছে ভারতজুড়ে।

ওমিক্রনের ‘সুনামি’তে ফেব্রুয়ারির প্রথম ১৫ দিনের মধ্যেই ভারতে কোভিড সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ চূড়ায় পৌঁছাতে পারে বলে মাদ্রাজ আইআইটির এক সমীক্ষায় উঠে এসেছে।

এই পরিস্থিতিতে করণীয় ঠিক করতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিকেলে ভারতের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে করবেন বলে  এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

সর্বশেষ গত বছরের ২৪ ডিসেম্বর কোভিড বিষয়ে বৈঠক করেছিলেন মোদী। সে সময় তিনি ভারতে সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউয়ের ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক হতে বলেছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button