এশিয়াবিশ্বযুক্তরাষ্ট্র

ইউক্রেন নিয়ে পুতিনকে হুঁশিয়ার করলেন বাইডেন

নন্দন নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ধারণা করছেন, ইউক্রেনে হামলা চালাতে চায় রাশিয়া। স্থানীয় সময় গতকাল বুধবার বাইডেন এ কথা বলেন। তবে বাইডেন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, হামলা চালালে মস্কোকে চড়া মূল্য দিতে হবে। খবর এএফপির

বাইডেন বলেন, তিনি বিশ্বাস করেন না যে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন যুদ্ধ চান। তবে পুতিন এমন এক পরিস্থিতি তৈরি করেছেন, যা নিয়ন্ত্রণে আনা কঠিন হয়ে পড়ছে। এ পরিস্থিতির কারণে যেকোনো সময় এ অঞ্চল হাতছাড়া হয়ে যেতে পারে।

ক্ষমতায় আসার এক বছর পূর্তির প্রথম দিনে নিজের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বাইডেন বলেন, আমার ধারণা, পুতিন ইউক্রেনে হামলা চালাতে চান। যুক্তরাষ্ট্রকে পরীক্ষার জন্যও তিনি এমন করতে পারেন।

বাইডেন আরও বলেন, পুতিনের সামনে দুটি পথ খোলা আছে। হয় পালাতে হবে, নয়তো কূটনৈতিক সমঝোতায় আসতে হবে।

তবে ইউক্রেন সীমান্তে এক লাখের বেশি সেনা ও যুদ্ধের সরঞ্জাম মোতায়েন নিয়ে পাল্টা–হুঁশিয়ারি দিয়েছে মস্কোও। বলেছে, পশ্চিমা বিশ্ব কিয়েভের জন্য হুমকি হয়ে উঠছে।

ইউক্রেনে যেকোনো হামলার ব্যাপারে মস্কোকে সতর্ক করেছেন বাইডেন। তিনি বলেছেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা ঘটলে রাশিয়াকে চরম মূল্য দিতে হবে। রাশিয়া যদি সীমান্তে মোতায়েনকৃত সেনাবাহিনীর সক্ষমতাকে ব্যবহার করে, তাহলে সেটি দেশের জন্য বিপর্যয় ডেকে আনবে।

বাইডেনের এ মন্তব্যের পরে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, যদি ইউক্রেন সীমান্তে নতুন হামলার জন্য রাশিয়ার সেনাবাহিনী অগ্রসর হয়, তাহলে খুব দ্রুত এর জবাব দেওয়া হবে। সাকি এক বিবৃতিতে বলেন, সাইবার হামলা বা সামরিক কোনো কৌশল খাটালেও রাশিয়াকে একইভাবে জবাব দেওয়া হবে।

স্থানীয় সময় আগামীকাল শুক্রবার জেনেভায় যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন ও রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। এর এক দিন আগে বাইডেন এ রকম বক্তব্য দিলেন।

ব্লিঙ্কেন গতকাল বুধবার কিয়েভে জেনেভা বৈঠকের প্রস্তুতি হিসেবে বৈঠক করেন। তিনি ওই বৈঠকে মস্কোকে শান্তিপূর্ণ পথ বেছে নিতে আহ্বান জানান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button