এশিয়াবিশ্বযুক্তরাষ্ট্র

মার্কিন নাগরিকদের রাশিয়া ভ্রমণে যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কতা

নন্দন নিউজ ডেস্ক: ইউক্রেন নিয়ে চলমান উত্তেজনার প্রেক্ষাপটে মার্কিন নাগরিকদের রাশিয়া ভ্রমণের ব্যাপারে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

স্থানীয় সময় গতকাল রোববার যুক্তরাষ্ট্র তার নাগরিকদের রাশিয়া ভ্রমণের ব্যাপারে সতর্কতামূলক পরামর্শ দেয়।

যুক্তরাষ্ট্র বিশেষ করে ইউক্রেনের সঙ্গে রাশিয়ার সীমান্তবর্তী এলাকা ভ্রমণের ব্যাপারে মার্কিন নাগরিকদের সতর্ক করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কতায় বলা হয়, মার্কিন নাগরিকেরা সংশ্লিষ্ট দেশ বা এলাকায় হয়রানির মুখোমুখি হতে পারেন। সে ক্ষেত্রে তাঁদের সহায়তা করার জন্য ওয়াশিংটনের হাতে সীমিত ক্ষমতা থাকবে।সতর্কতায় আরও বলা হয়, যেসব মার্কিন নাগরিক রাশিয়া সফর করছেন বা দেশটিতে বসবাস করছেন, তাঁরা কোনো কারণ ছাড়াই রুশ কর্তৃপক্ষের জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে পারেন। মার্কিন নাগরিকদের হুমকি দিতে পারেন রাশিয়ান কর্মকর্তারা। মার্কিন নাগরিকেরা হয়রানি, দুর্ব্যবহার ও চাঁদাবাজির শিকার হতে পারেন।

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসে কর্মরত কূটনীতিকদের পরিবারের সদস্যদের সে দেশ ত্যাগ করতে নির্দেশ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর।অতিগুরুত্বপূর্ণ নন—কিয়েভের মার্কিন দূতাবাসের এমন কর্মীদের স্বেচ্ছায় ইউক্রেন ছাড়ার ব্যাপারে অনুমতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

একই সঙ্গে মার্কিন নাগরিকদের এখনই ইউক্রেন ত্যাগের বিষয়টি বিবেচনা করতে বলেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটি বলছে, মস্কোর সম্ভাব্য কোনো আগ্রাসনের পর হয়তো মার্কিন নাগরিকদের সরিয়ে নেওয়ার মতো অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র থাকবে না।

বর্তমান পরিস্থিতিতে মার্কিন নাগরিকদের ইউক্রেন ভ্রমণ না করার বিষয়েও পরামর্শ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের অব্যাহত হুমকির কারণে মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তর গতকাল এসব পদক্ষেপ নেয়।

ওয়াশিংটন, কিয়েভসহ পশ্চিমাদের অভিযোগ, ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানোর প্রস্তুতি নিচ্ছে রাশিয়া। তবে রাশিয়ার দাবি, ইউক্রেনে আগ্রাসন চালানোর কোনো ইচ্ছা ক্রেমলিনের নেই।

মস্কোর সম্ভাব্য হামলা রুখতে ইউক্রেনে ‘প্রাণঘাতী’ সামরিক সরঞ্জাম পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। অন্যদিকে, ইউক্রেন সীমান্তের দিকে আরও সেনা, ট্যাংক ও যুদ্ধজাহাজ পাঠিয়েছে রাশিয়া। সামরিক মহড়ার অংশ হিসেবে তা পাঠানোর কথা বলছে মস্কো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button