কানাডাকোভিড-১৯স্বাস্থ্য

আগামীকাল সোমবার থেকে খুলছে অন্টারিওর রেস্টুরেন্ট জিম এবং সিনেমা হল।

আজ রাত ১২:০১ মিনিট সোমবার থেকে অন্টারিও প্রথম ধাপের উন্মুক্তকরণ বা রি-ওপেনিং এর পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। এই পদক্ষেপ তাদের তিন ধাপের রি-ওপেনিং পরিকল্পনার অংশ , যা অমিক্রণ ভেরিয়েন্ট এর সংক্রমণ কমানোর উদ্দেশ্যে জানুয়ারির শুরুতে আরোপ করা হয়েছিল। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে সামাজিক অনুষ্ঠানের জন্য সর্বোচ্চ ১০ জন ঘরের ভেতরে এবং বাইরে সর্বোচ্চ ২৫ জন নির্ধারণ করা হয়েছে ।

এছাড়া রেস্তোরাঁ,জিম, দোকান,বিপনী বিতান,শপিং মল, মিটিং রুম,অনুষ্ঠান হল সহ সিনেমাহল সমূহ ৫0 শতাংশ ধারণক্ষমতা হিসেবে খোলা রাখতে পারবে। জাদুঘর, গ্যালারি ,অ্যাকোয়ারিয়াম, চিড়িয়াখানা ,ক্যাসিনো, বিংগো হল এবং অন্যান্য খেলাধুলার জায়গাও অনুরূপভাবে খোলা রাখতে পারবে। এর পাশাপাশি, অন্টারিও সরকার সর্বোচ্চ ৫0 শতাংশ ধারণ ক্ষমতা অথবা ৫00 জন পর্যন্ত দর্শক উপস্থিতির মধ্যে (কমসংখ্যক যেকোনো একটি )বজায় রেখে খেলাধুলা , কনসার্ট এবং থিয়েটার সমূহ খোলা রাখার ঘোষণা দিয়েছে ।এ মর্মে অন্টারিওর প্রিমিয়ার ডাগ ফোরড বলেন , “আমরা আমাদের পশ্চাদ পদচারণা রোধে মানবিক ভাবে সবকিছু করতে চাই ।এক্ষেত্রে যদি একধাপ থেকে অন্য ধাপে যেতে কিছুদিন অপেক্ষা করতে হয় তাহলে আমরা প্রয়োজনে তা করতে দ্বিধা করবো না।“ বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, রিটেইলার, গ্রোসারির দোকান, শপিং মল এবং ফার্মেসি সমূহ ৫0 শতাংশ ধারণক্ষমতা বজায় রেখে খোলা রাখতে পারবে। এছাড়াও ধর্মীয় উপাসনা এবং অনুষ্ঠানাদি সহ বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে ও একই নিয়ম বহাল থাকবে। তবে ,অন্টারিও প্রদেশের পক্ষ থেকে টিকার সনদপত্র দেখানোর প্রক্রিয়া আরো জোরদার করার কথা বলা হয়েছে। অন্যদিকে সরকার work-from-home এর ক্ষেত্রে আইনগত প্রয়োজনীয়তা শিথিল করার কথা উল্লেখ করেছে। অন্টারিওর চিফ মেডিকেল অফিসার ডাক্তার কাইরেন মুর বলেন,”যারা ঘরে বসে কাজ করতে সক্ষম হবেন তারা তা অব্যাহত রাখবেন”।

তিনি আরো বলেন ,সবাইকে নিজ দায়িত্বে করোনার উপসর্গ অনুযায়ী স্বাস্থ্য সুবিধা নিতে হবে অথবা রাপিড অ্যান্টিজেন টেস্ট করাতে হবে। সেই সাথে তিনি সবাইকে সামাজিকভাবে এই ভাইরাসের সাথে বসবাস করা এবং এই সংক্রান্ত ঝুঁকির মধ্যে টিকে থাকার জন্য প্রয়োজনীয় শিক্ষা নেয়ার কথাও উল্লেখ করেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button