কানাডা

অটোয়ায় জরুরি অবস্থা জারি

নন্দন নিউজ ডেস্ক: কানাডার রাজধানী অটোয়ায় জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছেন শহরের মেয়র জিম ওয়াটসন। করোনাভাইরাস সংক্রান্ত বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে এক সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে ট্রাকচালকদের বিক্ষোভের প্রতিক্রিয়ায় রোববার এই ঘোষণা দেওয়া হয়। খবর বিবিসির।

জিম ওয়াটসন বলেছেন শহরটি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। বিক্ষোভকারীদের সংখ্যা পুলিশের চেয়ে অনেক বেশি। তিনি আরও বলেছেন, এ ধরনের বিক্ষোভ নগরবাসীর নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলার জন্য হুমকি হিসেবে দেখা দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র-কানাডা সীমান্তে চলাচলকারী ট্রাকচালকদের জন্য জারি করা করোনার টিকাসংক্রান্ত বিধিনিষেধ প্রত্যাহারের দাবিতে অটোয়ায় বিক্ষোভ শুরু। ফ্রিডম কনভয় নামে চলা সপ্তাহব্যাপী এই বিক্ষোভে অটোয়ার জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে।

জরুরি অবস্থার মধ্যে মেয়র কী ব্যবস্থা নিতে পারেন সে সম্পর্কে নির্দিষ্ট কিছু জানা যায়নি। তবে পুলিশ বলেছে, বিক্ষোভ দমনে তাঁরা নতুন আরো পুলিশ সদস্য মোতায়েন করবে। এছাড়া বিক্ষোভকারীদের সহায়তা করলে তাদেরও গ্রেপ্তার করা হতে পারে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

কানাডার জাস্ট্রিন ট্রুডোর সরকার গত ১৫ জানুয়ারি আন্তসীমান্ত ট্রাকচালকদের জন্য করোনার টিকাসংক্রান্ত আদেশ জারি করে। এর আওতায় কানাডার যে ট্রাকচালকেরা টিকা নেননি, তাঁদের ট্রাক নিয়ে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে দেশে ফেরার পর প্রতিবারই কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। যুক্তরাষ্ট্র সরকারও সম্প্রতি বলেছে, সে দেশে প্রবেশের জন্য বিদেশি ট্রাকচালকদের অবশ্যই টিকা গ্রহণের প্রমাণ উপস্থাপন করতে হবে।

কানাডায় টিকাসংক্রান্ত আদেশ জারি করায় ট্রাকচালকেরা ক্ষুব্ধ হন। এরপর থেকে অটোয়ায় তুমুল বিক্ষোভ শুরু করেন তাঁরা। বিবিসির প্রতিবেদন অনুযায়ী, কানাডায় আন্তসীমান্ত ট্রাকচালকের সংখ্যা ১ লাখ ২০ হাজার। এর মধ্যে প্রায় ৯০ শতাংশই টিকা নিয়েছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button