এশিয়াবিশ্ব

গুগলের বিরুদ্ধে ভুয়া খবর ছড়ানোর অভিযোগ রাশিয়ার, বন্ধ বিজ্ঞাপন

নন্দন নিউজ ডেস্ক: রাশিয়ার যোগাযোগ পর্যবেক্ষক সংস্থার অভিযোগ, মার্কিন ইন্টারনেটভিত্তিক প্রতিষ্ঠান গুগলের ইউটিউব থেকে ইউক্রেনে তাদের সামরিক অভিযান নিয়ে ভুয়া খবর ছড়ানো হচ্ছে। তাই রাশিয়ায় গুগলের বিজ্ঞাপন বন্ধ করে দেওয়া হবে। আজ বৃহস্পতিবার সংস্থাটির পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়েছে, রাশিয়া রাষ্ট্রীয় নিয়ন্ত্রণের বাইরে থাকা গণমাধ্যম ও তথ্য উৎস বন্ধ করে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। এ সারিতে গুগলের নামও চলে আসতে পারে।

রাশিয়ার পর্যবেক্ষক সংস্থা বলেছে, গুগলের মালিকানাধীন ইউটিউব অসংখ্য রুশ আইন লঙ্ঘন করেছে। এ ছাড়া রাশিয়ার সামরিক অভিযান নিয়ে ভুয়া খবর ছড়ানোর অন্যতম প্রধান প্ল্যাটফর্ম এটি। রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর সুনাম ক্ষুণ্ন করছে প্ল্যাটফর্মটি।

রাশিয়ার পর্যবেক্ষক সংস্থা আরও বলেছে, ভুয়া খবর ছড়ানো ঠেকাতে ব্যবস্থা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ক্ষেত্রে যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হবে, তার মধ্যে রয়েছে গুগল ও এর তথ্য উৎসগুলোতে বিজ্ঞাপন দেখানো নিষিদ্ধ করা। এ ছাড়া গুগল সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে লোকজনকে রুশ আইন লঙ্ঘন সম্পর্কে অবহিত করা হবে।
রাশিয়ার যোগাযোগ পর্যবেক্ষক সংস্থা থেকে গুগলের বিরুদ্ধে রুশবিরোধী অবস্থান নেওয়ার অভিযোগ এনে ইতিমধ্যে গুগল নিউজ অ্যাপ ও ওয়েবসাইট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সৈন্য পাঠান। এরপর ক্রেমলিনের পক্ষ থেকে রুশ সৈন্যদের সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য প্রচার করার জন্য ১৫ বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের বিধান করে আইন পাস করা হয়েছে।

ক্রেমলিনের অভিযোগ, ইউক্রেনের উগ্র ডানপন্থী সংগঠনগুলোর ভুয়া তথ্য বন্ধের কোনো ব্যবস্থা নেয়নি ইউটিউব। রাশিয়ার পক্ষ থেকে অভিযোগ করা ১২ হাজার চরমপন্থার পেজ ইউটিউব থেকে সরানো হয়নি।

এ ছাড়া গুগলের বিরুদ্ধে রাশিয়ার রাষ্ট্র নিয়ন্ত্রিত গণমাধ্যম আরটি, স্পুতনিক ও অন্যান্য গণমাধ্যম বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ তোলা হয়েছে।

সম্পর্কিত নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button