আফ্রিকাএশিয়াবিশ্ব

আইএমএফ, বিশ্বব্যাংক থেকে বাদ পড়া ঠেকাতে ব্রাজিলের সমর্থন চায় রাশিয়া

নন্দন নিউজ ডেস্ক: আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ), বিশ্বব্যাংক এবং শীর্ষস্থানীয় অর্থনৈতিক দেশগুলোর জোট জি টোয়েন্টি থেকে রাশিয়াকে বাদ দেওয়া ঠেকাতে ব্রাজিলের পদক্ষেপ চেয়েছে মস্কো। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবর, এ বিষয়ে অনুরোধ জানিয়ে ব্রাজিলের অর্থমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন রাশিয়ার অর্থমন্ত্রী।

রুশ অর্থমন্ত্রী আন্তন সিলুয়ানভ ব্রাজিলের অর্থমন্ত্রী পাওলো গুয়েদেসকে চিঠিতে লিখেছেন, ‘পর্দার আড়ালে আইএমএফ ও বিশ্বব্যাংকের নীতিনির্ধারণী প্রক্রিয়ায় রাশিয়ার অংশগ্রহণ সীমিত করা বা বহিষ্কার করার জন্য কাজ চলছে।’

আন্তর্জাতিক আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং বহুজাতিক ফোরামে রাশিয়াকে রাজনৈতিকভাবে দোষারোপ এবং দেশটির বিরুদ্ধে বৈষম্যমূলক পদক্ষেপ নেওয়ার চেষ্টা রুখে দিতে ব্রাজিলের সমর্থন চেয়েছেন রাশিয়ার অর্থমন্ত্রী।

গত বুধবার ব্রাজিলের অর্থমন্ত্রীর হাতে চিঠিটি তুলে দিয়েছেন ব্রাসিলিয়ায় রাশিয়ার দূত। চিঠিতে সিলুয়ানভ লিখেছেন, রাশিয়ার আন্তর্জাতিক রিজার্ভের প্রায় অর্ধেকই জব্দ করা হয়েছে। বিদেশি বাণিজ্যসংক্রান্ত লেনদেন বন্ধ রাখা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র ও তার সহযোগীরা রাশিয়াকে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় থেকে বিচ্ছিন্ন করার জন্য একটি নীতিমালা তৈরি করছে।

চিঠিতে রুশ অর্থমন্ত্রী লিখেছেন, ‘আপনারা জানেন, যুক্তরাষ্ট্র ও তাদের মিত্রদেশগুলোর নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়া অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জের মধ্যে আছে।’ তাঁর দাবি, রাশিয়ার ওপর যেভাবে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে তাতে ব্রেটন উডস চুক্তি লঙ্ঘন হয়েছে। এই চুক্তির ওপর ভিত্তি করেই আইএমএফ ও বিশ্বব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হয়।

চিঠিতে রুশমন্ত্রী আরও লিখেছেন, ‘আমরা মনে করি, জি সেভেনভুক্ত দেশগুলোর নজিরবিহীন নিষেধাজ্ঞার কারণে যে সংকট তৈরি হয়েছে, তার সমাধানে যৌথ পদক্ষেপ নিতে হবে। তা না হলে এর পরিণাম হবে দীর্ঘমেয়াদি।’

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থমন্ত্রী জ্যানেট ইয়েলেন বলেছেন, রাশিয়া উপস্থিত থাকলে জি টোয়েন্টির বৈঠকে অংশ নেবে না যুক্তরাষ্ট্র। ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো ইউক্রেন সংকটে সরাসরি কোনো পক্ষ নেননি। ইউক্রেনে রুশ হামলার নিন্দাও জানাননি তিনি। এতে বলসোনারো প্রশাসনের বিরুদ্ধে ব্যাপক ক্ষোভ জানায় বাইডেন প্রশাসন।

ইউক্রেনে রুশ অভিযান শুরুর প্রায় এক সপ্তাহ আগে গত ১৬ ফ্রেব্রুয়ারি মস্কোতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে দেখা করেন বলসোনারো। তখন রাশিয়ার সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন তিনি।

৫ মার্চ সিনেটে এক শুনানিতে ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কার্লোস ফ্রাঙ্কা বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাবে জি টোয়েন্টি থেকে রাশিয়াকে বহিষ্কারের বিরোধিতা করেছে তাঁর দেশ। তিনি বলেন, ‘এ সময়ে সবচেয়ে জরুরি বিষয় হলো জি টোয়েন্টি, ডব্লিউটিও ও এফএও–এর মতো আন্তর্জাতিক সংগঠনগুলোর কার্যক্রম সচল রাখা। আর এর জন্য রাশিয়াসহ সব দেশের অংশগ্রহণ প্রয়োজন।’

সম্পর্কিত নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button